সিটি পয়েন্ট এখন ‘নগর চত্বর’

সিটি পয়েন্ট এখন ‘নগর চত্বর’

ইমরান মাহমুদ,সিলেট: সিলেট নগরীর বন্দরবাজার এলাকার সিলেট সিটি করপোরেশনের সামনের চত্বরটি এতোদিন ‘সিটি পয়েন্ট’ নামে পরিচিত ছিলো। তবে রোববার ২৬ জুলাইএই মোড়টি নগর চত্বর নামে নামকরণ করেছে সিলেট সিটি করপোরেশন।
যদিও সিলেটের আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের অনেকে এই চত্বরটি সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রথম মেয়র সদ্য প্রয়াত বদরউদ্দিন আহমদ কামরানের নামে নামকরণের দাবি জানিয়েছিলেন।
রোববার সন্ধ্যা এই চত্বরের নতুন নামকরণের পাশপাশি এ স্থানে সম্প্রতি ভেঙ্গে ফেলে নগরীর চৌহাট্টা এলাকার শত বছরের প্রাচীন স্থাপনা আবুসিনা ছাত্রাবাসের আদালে নির্মিত স্থাপনার উদ্বোধন করেন সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।
এসময় তিনি বলেন, সিলেটের ইতিহাস ঐতিহ্যকে লালন করেই নগরীকে সাজানো হচ্ছে। সিলেট সিটি করপোরেশনের গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন মোড়ে সৌন্দর্য্য বর্ধণ অবকাঠামো নির্মান করা হচ্ছে। নির্মিত অবকাঠামোগুলোতে নগরীর ট্রাফিক কার্যক্রম পরিচালনায় সহায়ক ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।
রবিবার সন্ধ্যায় সিলেট সিটি করপোরেশনের সৌন্দর্য্যবর্ধণ প্রকল্পের আওতায় নবনির্মিত নগর চত্বর অবকাঠামো উদ্বোধন করেন সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।
এসময় উপস্থিত ছিলেন সিসিকের প্রধান প্রকৌশলী নূর আজিজুর রহমান, সসিকিরে প্রধান প্রশাসনকি কর্মকর্তা হানফিুর রহমান, সহকারী প্রকৌশলী শামসুল হক, ইউনাইডেট কমার্সিয়াল ব্যাংক (ইউসিবি) এর সিলেট রিজিওনাল হেড আমিনুল হক, ডিজাইন আর্টিস্টির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আজহার উদ্দিন কাওসার, সইিও মো. ইসহাক রাজি শাহনওেয়াজ, সহকারী প্রকৌশলী মোস্তাফজিুর রহমান মাশরুর, আরফেনি ইসলাম আকাশ ও সমাজর্কমী জুরজে আব্দুল্লাহ গুলজার।
এই স্থাপনা নির্মাণে অর্থায়ন করেছে ইউনাইডেট কমার্সিয়াল ব্যাংক (ইউসিবি)। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ব্যাংকটির রিজিওনাল হেড আমিনুল হক বলেন, আধ্যাত্মিক ও পর্যটন নগরীর সিলেটের সৌন্দর্য্য বর্ধনে সিলেট সিটি করপোরেশনের সাথে আমরা অংশ হতে পেরে গর্বিত।
এই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করেছে ডিজাইন আর্টিস্টি। প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আজহার উদ্দিন কাওসার বলেন, সিলেটের একটি ঐতিহাসিক ও স্তাপত্যশৈলির অপরুপ নিদর্শন ছিলো আবুসিনা ছাত্রাবাস। সম্প্রতি হাসপাতাল নির্মাণের জন্য শতবর্ষ প্রাচীন ভবনটি ভেঙ্গে ফেলা হয়। ঐতিহাসিক এই স্থাপনা ও বন্দর এলাকার স্মৃতি ধরে রাখতে লাইট হাউসের ভাবনার সমন্বয় করে নির্মান করা হয়েছে নগর চত্বরের এই অবকাঠামোটি